জামাইয়ের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

ওয়েব ডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ অভিনেত্রী মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় একসময়ের উত্তম কুমারের নায়িকা ছিলেন। তাকে শেষবার দেখা গিয়েছিল সুজিত সরকারের ‘পিকু’ ছবিতে। ২০১৫ সালে ‘পিকু’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়। তবে সম্প্রতি ফের খবরের পাতায় উঠে এলেন ঠিকই, কিন্তু সেটা ভীষণই দুঃখজনক কারণে। জানা যাচ্ছে অভিনেত্রীর অসুস্থ মেয়েকে চরম অবহেলার কারণে জামাইয়ের বিরুদ্ধে বোম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর স্বামী জয়ন্ত মুখোপাধ্যায়ের (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের পুত্র) দুই কন্যা মেঘনা ও পায়েল। গত ২০১০ সালে মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়ের ছোট মেয়ে পায়েলে সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ব্যবসায়ী ডিকি মেহেতার। এদিকে মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়ের ছোট মেয়ে পায়েল দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। তিনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বলে জানা যায়।

গত বছর থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। চিকিৎসকরা তাঁকে নিয়মিত ফিজিওথেরাপি করতে বলেন বলে অভিযোগ। অথচ অভিনেত্রী মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগ তাঁর জামাই মেয়ে পায়েলের ঠিক মতো চিকিৎসা করাচ্ছেন না। পায়েলের জন্য রাখা ফিজিওথেরাপিস্ট ও নার্সদের টাকা দেওয়াও বন্ধ করে দিলে তাঁরাও কাজ ছেড়ে চলে যান। অভিযোগ, মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর স্বামী জয়ন্ত মুখোপাধ্যায় দুজনে তাদের মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিতে চাইলেও তাঁদের সেটাও করতে দেওয়া হচ্ছে না। এমনকি মেয়ের সঙ্গে দেখাও করতে দেওয়া হচ্ছে না তাঁদের।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment