পাথরঘাটায় চঞ্চল মন্ডল খুনের ঘটনায় ধৃত ৮, উদ্ধার ৩টি আগ্নেয়াস্থ সহ ৫ রাউন্ড গুলি, ও ৫০ হাজার টাকা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

অর্ণব মৈত্র, পাথরঘাটাঃ পাথরঘাটা এলাকায় জমি বিক্রেতা চঞ্চল মন্ডল খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৮ জন। উদ্ধার ৩ টি আগ্নেয়াস্থ সহ ৫ রাউন্ড গুলি ও ৫০ হাজার টাকা। ধৃতদের আজ ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হলে আদালত পুলিশের পুলিশি হেফাজতের আবেদন মঞ্জুর করেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, ব্যবসাহিক শত্রুতা ও ব্যক্তিগত আক্রোশের জেরেই এই খুন । ধৃত ৮ জনের মধ্যে পাথরঘাটা এলাকার অজিতেশ হালদার এর জমি কম দামে বিক্রি করে, প্রচুর টাকা মুনাফা নেয় বলে অভিযোগ চঞ্চল মন্ডলের বিরুদ্ধে, পাথরঘাটা এলাকার বিজেশ এই সঙ্গেও একইভাবে কমদামে জমি বিক্রি করে চঞ্চল। এর পরেই গত ৮ মাস ধরে চঞ্চল মন্ডলকে মারার ছক করে আজিতেশ ও বিজেশ । ঘটকপুকুরের এক আমিনের সাথে যোগাযোগ করে অজিতেশ। সেই আমিন আবার ঘটকপুকুরে কুখ্যাত দুষ্কৃতী মোহাম্মদকে সুপারি দেয় ২ লাখ টাকার বিনিময়ে সে এই কাজ করতে রাজি হয় এরপর মোহাম্মদ আবার ক্যানিংয়ের জীবনতলার ২ দুষ্কৃতীকে সুপারি দেয়। মূলত এরা রাজমিস্ত্রির কাজের পিছনে টাকার বিনিময়ে এইসব দুষ্কর্ম করতো।

তবে খুন করার ৪ দিন আগে এই মোহাম্মদ পাথরঘাটা অঞ্চলে একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে সেখানে থাকতো এবং গত শনিবার মুর্শিদাবাদের ফলস জমির প্লান করতে চঞ্চলের কাছে যায়। সেখানে তার নাম বলে রফিকুল শেখ। এরপর দিন রবিবার সন্ধ্যা বেলায় আবার চঞ্চল মন্ডলের বাড়ি যায়। সেই সময় চঞ্চল মন্ডল বাড়িতে না থাকায় তার ছোট ভাই দেবব্রত মন্ডলের ফোন থেকে বাড়িতে আসার কথা বলে বাড়ি আসলে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলার পর সুযোগ বুঝে তাকে গুলি করে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। আর তারপরই তদন্তে নামে বিধাননগর গোয়েন্দা শাখা ও নিউটাউন থানার পুলিশ।

২০শে নভেম্বর মোবাইল সূত্র ধরে এদেরকে নিউটাউন, রাজারহাট, কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিভিন্ন জায়গা থেকে ৮ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আজ ধৃতদের সবাইকে ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হয়। আদালত পুলিশের পুলিশি হেফাজতের আবেদন মঞ্জুর করেন।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment