বন্ধ সিগন্যাল পোস্টের লাইট, সমস্যার সম্মুখীন নিত্য পথচারী সহ গাড়ী চালকরা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

অর্ণব মৈত্র, ভাঙড়ঃ প্রায় দুই বছর ধরে কলকাতা-বাসন্তী হাইওয়ের ভাঙড়ের ঘটকপুকুর চৌমাথার মোড়ের প্রায় সব কটি সিগন্যাল পোস্টের লাইটই ভেঙে পড়ে রয়েছে। এই ভেঙে যাওয়া সিগন্যাল পোস্টের লাইট গুলো সংস্কার না হওয়ায় নানান সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে পথচলতি সকল মানুষ ও গাড়ি চালকদের। শুধু সমস্যাই নয় প্রায় প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে দূর্ঘটনা।

মূলত চার মাথার মোড়ে সকাল ও বিকেল এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রায় কয়েকশো বাস, ট্রাক সহ বিভিন্ন গাড়ি যাতায়াত করে। অফিসের সময় নিত্য প্রবল যানজটের মধ্যে পরতে হয় গাড়ি চালকদের। কারন এই কলকাতা-বাসন্তী হাইওয়ে দিয়ে এক দিকে খুব সহজেই পৌঁছনো যায় সুন্দরবনে ও অপর দিকে কলকাতা। এর পাশাপাশি একদিকে সোনারপুর রোডে ও অপর দিকে ভাঙড় রোড। এই এতো গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় গাড়ি নিয়ন্ত্রনের জন্য প্রায় বছর তিনেক আগে রাজ্য পুলিশের উদ্যোগে বসানো হয় সিগন্যাল লাইট। সেই লাইট মাত্র কয়েক মাস থাকার পর রক্ষনাবেক্ষনের অভাবে আস্তে আস্তে পোস্ট গুলো থেকে লাইট গুলো ভেঙে পড়ে। আবার কোনটা ঝড়ে ভেঙে পড়ে।


এইভাবে প্রায় বছর দুই আগে লাইট গুলো ভেঙে পড়ার পর আজও তার কোন সংস্কার হয়নি। শুধু সিগন্যাল লাইট নয় সেই সঙ্গে রক্ষনাবেক্ষনের অভাবে নষ্ট হয়ে গেছে এই সিগন্যাল লাইট গুলো কণ্ট্রোল করা যন্ত্রপাতি ও তার বিশেষ ঘরও। এতো গুরুত্বপূর্ণ ও জনবহুল রাস্তার লাইট গুলো খারাপ হয়ে পড়ায় একদিকে যেমন পথচলতি মানুষেরা জিবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার করছে তেমন অপর দিকে যানজটে রাস্তায় উপর দাঁড়িয়ে থাকতে হয় গাড়ি চালকদের। আর সেই যানজট মুক্ত করতে প্রতিদিন ভাঙড় থানার পুলিশদেরও বেশ বেগ পেতে হয়। যদিও জানা যায়, এই সিগন্যাল পোস্টের লাইটগুলো দ্রুত সংস্কারের দাবী করছে স্থানীয় বাসিন্দা সহ স্কুল পড়ুয়ারা। তবে এই বিষয়ে প্রশাসনের কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা মুখ খুলতে নারাজ।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment