চাঁদপাড়ায় প্রতিষ্ঠিত হতে চলেছে ‘হরি চাঁদ গুরু চাঁদ’ বিশ্ববিদ্যালয়

Spread the love
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    8
    Shares

 

শান্তনু বিশ্বাস, চাঁদপাড়াঃ ১৫ই নভেম্বর বীণাপাণি দেবীর জন্ম শতবর্ষ পালন অনুষ্ঠানে ঠাকুরনগর ঠাকুর বাড়ির মাঠে এসে মতুয়া মহাসংঘের প্রধান বড়মা বীণা পাণি দেবীকে ‘জন্মশতবর্ষের’ শুভেচ্ছা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব‍্যানার্জী। পাশাপাশি তিনি ঠাকুরবাড়িতে বড়মা বীণাপানির ঘরে গিয়ে তাঁকে প্রণাম করেন। সেখান থেকে হুইল চেয়ারে করে বড়মাকে নিয়ে মঞ্চে আসেন।

এদিন মঞ্চে উপস্থিত হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব‍্যানার্জী বলেন, “এন.আর.এস নিয়ে অসমে বাঙালি খেদাও হচ্ছে। এ বিষয়ে তিনি তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেন। এমনকি এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, যারা বাংলাদেশ থেকে উদ্বাস্তু হয়ে এসেছেন, ১৯৭১ সাল পর্যন্ত যারা এদেশে এসেছেন তারা এদেশের নাগরিক। আপনাদের ভোটার কার্ড আছে, রেশন কার্ড আছে। আপনারা ভারতে থাকেন এটাই তো আপনাদের পরিচয়।”

উল্লেখ্য এদিন ঠাকুরনগর ঠাকুর বাড়ির মূল মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব‍্যানার্জী হারি চাঁদ গুরু চাঁদের নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ার কথা ঘোষণা করেন। এক্ষেত্রে তিনি চাঁদপাড়া স্টেশন থেকে মাএ তিন কিলোমিটার দূরে যশোর রোডের পাশে দেবীপুরের ফার্মের মাঠে এই বিশ্ববিদ্যালয় করার কথা জানান। আর এই ঘোষণার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ওই ফাঁকা জমিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম সহকারে প্রশাসনের তরফ থেকে একটি সাইনবোর্ডও লাগানো হয়। সেই জমির পরিমাণ ৮.৮ একর। ইতিমধ্যে এই জমিটি শিক্ষা দপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় উচ্ছসিত এলাকার সকল পড়ুয়া থেকে তাদের অভিভাবক সকলেই।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment