আসামীর মঙ্গল কামনায় ভাইফোঁটা উৎযাপন ভাঙড় থানার মহিলা পুলিশকর্মীদের

আসামীর মঙ্গল কামনায় ভাইফোঁটা উৎযাপন ভাঙড় থানার মহিলা পুলিশকর্মীদের

 

অর্ণব মৈত্র, ভাঙরঃ সম্প্রীতির বার্তা এবং থানা এলাকার মানুষের সঙ্গে পুলিশের জনসংযোগ বাড়াতে আসামীর মঙ্গল কামনায় ভাইফোঁটা উৎযাপন ভাঙড় থানায়। ভাঙড় থানার মহিলা পুলিশ কর্মী সুচরিতা, রোজিনাদের ধান-দূর্বা উঠল ‘ভাই’দের মাথায়। সেই ভাই আর কেউ নয় থানায় ধৃত আসামী। বলা চলে আসামীর মঙ্গল কামনায় তাঁদের মাথায় ফোঁটা দেওয়া হল। থানা ভর্তি জনগণের সমবেত কণ্ঠে উচ্চারিত হল— ‘ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমের দুয়ারে পড়ল কাঁটা’।

৯ই নভেম্বর শুক্রaবার ভাঙড় থানা এলাকার বিভিন্ন ধর্মের মানুষকে নিয়ে উৎসবের মেজাজে সম্প্রীতির ভাইফোঁটা অনুষ্ঠিত হয়। থানার পুলিশ কর্মী থেকে এলাকার জনপ্রতিনিধি সহ বিশেষ ভাবে আসামী ও স্থানীয় বাসিন্দা দের ভাইফোঁটা ও মিষ্টি মুখ করা হয়। গণ ফোঁটা দেওয়ার আয়োজন করা হয়। থানার সামনে অস্থায়ী মঞ্চ তৈরি করে ভাইফোঁটা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানের শেষে ছিল পাত পেড়ে খাওয়া। মাংস-ভাতের আয়োজন করা হয়েছিল।

আজকের অনুষ্ঠান সম্পর্কে ভাঙড় থানা সমন্বয় কমিটির সম্পাদক কৌশিক সর্দার বলেন, “সকল সম্প্রদায়ের মানুষকে একত্রিত করে ভাইফোঁটার মধ্য দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক মেলবন্ধন করার জন্য এই অনুষ্ঠান করা হয়েছে।”

এদিনের এই অনুষ্ঠানের মুল কান্ডারি ভাঙড় থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক অশোকতরু মুখার্জি বলেন, “পুলিশ ও জনগণের মধ্যে পাবলিক রিলেশান এর একটা পাট। মূলত ভাইবোনের সম্পর্ক সুদৃর করার জন্য এই অনুষ্ঠান করা হয়েছে।” আসামীদের ভাইফোঁটা সম্পর্কে ওসি বলেন, তারাও মানুষ হয়তো একটা অপরাধ করে ফেলেছে কিন্তু তারা ও মানুষ অবশ্য আইন আইনের পথে চলবে।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  • 0
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *