এবার কি তবে দয়া ভাবিকেও ‘হারালেন’ দর্শকরা?

এবার কি তবে দয়া ভাবিকেও ‘হারালেন’ দর্শকরা?

 

ওয়েব ডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ  সবে সবে মা হয়েছেন দিশা ভাকানি। আর সেই কারণে মেয়ের সঙ্গে বেশি করে সময় কাটানোর জন্যই শুটিংয়ের সময় ক্রমশ কমিয়ে দিতে শুরু করেন দিশা ভাকানি ওরফে অভিনেত্রী দয়া ভাবি। মা হওয়ার পর মাতৃত্বকালীন ছুটি শেষ করে যখন শুটিংয়ে ফেরার কথা “তারক মেহতা কা উল্টা চশমা”-র দয়া ভাবির, সেই সময়ই থেকেই একটু বেতাল শুরু করেন অভিনেত্রী।

জানা যায়, সন্তানকে সময় দেওয়ার জন্য সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা পর্যন্ত শুটিং করবেন বলে জানান দিশা। পাশাপাশি প্রতি এপিসোডের জন্য পারিশ্রমিকও বাড়িয়ে দেন অভিনেত্রী। প্রত্যেক এপিসোডের জন্য ১.৫ লক্ষ করে নেবেন বলেও দিশা ভাকানি দাবি করেন। পাশাপাশি মাসে ১৫ দিনের বেশি শুটিং করবেন না বলেও দাবি করেন দিশা। কিন্তু, এত কিছুর পরও নাকি এবার আর দিশা ভাকানির দেখা পাওয়া যাবে না “তারক মেহতা কা উল্টা চশমা”-খ্যাত দয়া বহেনের।

রিপোর্টে প্রকাশ, দিশা ভাকানির সমস্ত শর্ত প্রযোজক অসিত কুমার মোদী এক প্রকার মেনেই নিয়েছিলেন। সিরিয়ালের বেশ কয়েকটি প্রমোও শুট করেন দিশা। কিন্তু এখন নাকি বাদ সাধছেন দিশার স্বামী। জানা যাচ্ছে, দিশা যদি ফের শুটিং শুরু করেন, তাহলে সন্তানের উপর বেশি নজর দিতে পারবেন না তিনি। ফলে তাঁর ছোট্ট সন্তানের ক্ষতি হতে পারে। আর সেই কারণেই নাকি স্ত্রীকে আর নতুন করে অভিনয় জগতে আসতে দিতে চাইছেন না দিশা ভাকানির স্বামী। যদিও এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মুখ খোলেননি পর্দার দয়া বহেন।

এ বিষয়ে অসিত কুমার মোদীকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, দিশাকে ছাড়া শুটিং চালিয়ে নিয়ে যাওয়া কষ্টকর। কিন্তু, অভিনেত্রীর সন্তান এখনও খুব ছোট। তাই এই মুহূর্তে দিশা কী করবেন, তা জানা নেই তাঁদেরও। তবে দিশা ভাকানি যে এই মুহূর্তেই শুটিং ফ্লোর ছেড়ে দেবেন, সে বিষয়ে স্পষ্ট করেও কিছু জানাননি প্রযোজক অসিত কুমার মোদী। ২০১৫ সালে ব্যবসায়ী ময়ূর পাদিয়ার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিশা ভাকানি। ২০১৭ সালে স্তুতি নামে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন দিশা। সন্তান জন্মের আগে থেকেই শুটিং ছেড়ে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে চলে যান দিশা।

প্রসঙ্গত এর আগে ডক্টর হাতি-খ্যাত কবি কুমার আজাদের মৃত্যুতে ‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’-র দর্শকরা মনমরা হয়ে যান। কিন্তু, কবি কুমার আজাদের জায়গায় ইতিমধ্যেই অন্য একজনকে নিয়ে এসে, তাঁর জায়গা পূরণের চেষ্টা শুরু করেছেন প্রযোজক, পরিচালকরা।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *