অবশেষে দক্ষিণেশ্বরের স্কাইওয়াক উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

ওয়েব ডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ সকল প্রতীক্ষার অবসান ঘটল। আজ থেকেই খুলে যাচ্ছে রাজ্যের জনপ্রিয় তীর্থক্ষেত্র দক্ষিণেশ্বরের স্কাইওয়াক। ৫ই নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী এই স্কাইওয়াকের উদ্বোধন করবেন। মঙ্গলবার কালীপুজো। তার আগে স্কাইওয়াক চালু হওয়াতে স্বাভাবিকভাবে খুশি স্থানীয় বাসিন্দা থেকে মন্দির দর্শনে আসা ভক্তরা। দক্ষিণেশ্বরের স্কাইওয়াক নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। অর্থ বরাদ্দ, স্থানীয় হকারদের নানা দাবিদাওয়া সহ বিভিন্ন কারণে আটকে ছিল স্কাইওয়াকের কাজ। সেই বাধা অতিক্রম করে শেষ হয়েছে কাজ। তবে কলকাতা বা দিল্লি বিমানবন্দরে যে রকম স্কাইওয়াক দেখা যায়, এক্ষেত্রে সেরকম নয়। সাধারণ ফুটপাথের মতো হাঁটতে হবে এই স্কাইওয়াক দিয়ে। দু’দিকে থাকবে দোকান ও মন্দিরের ডালার দোকান। দক্ষিণেশ্বর স্টেশন থেকে নেমে বাইরে না বেরিয়ে স্কাইওয়াক ধরে সোজা পৌঁছে যাওয়া যাবে মন্দির চত্বরে। ফলে পুজো দিতে আসা প্রচুর মানুষ উপকৃত হবেন। প্রকল্পটি করতে খরচ হয়েছে প্রায় ৬০ কোটি টাকা।

স্কাইওয়াকের দুপাশে রয়েছে ১০০টি পুজোর ডালার দোকান। আগামীদিনে চলমান সিঁড়ি ধরে স্কাইওয়াকের উপরে উঠে দুপাশের যে কোনও দোকান থেকে পুজোর ডালা নিয়ে সরাসরি মন্দির চত্বরে পৌঁছে যাবেন ভক্তরা। রানি রাসমণির তৈরি করা, রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের স্মৃতিধন্য দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে সারা বছরই দর্শনার্থীর ভিড় থাকে। বিশেষ করে কালীপুজোর দিন সেই ভিড় মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। এবার কালীপুজোর আগে স্কাইওয়াক চালু হয়ে যাওয়ায় পুণ্যার্থীদের ভবতারিণী মায়ের মন্দির দর্শন ও পুজো দিতে অনেকটাই সুবিধা হবে।

প্রসঙ্গত মুখ্যমন্ত্রী আসবেন। সেই কারণেই ৪ ঠা নভেম্বর নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখেন ব্যারাকপুর কমিশনারেটের পুলিশ আধিকারিকরা। নিরাপত্তার স্বার্থে একদিকে যেমন স্কাইওয়াকের বিভিন্ন জায়গায় CCTV লাগানো হয়েছে। পাশাপাশি প্রচুর পুলিশকর্মীও মোতায়েন করা হচ্ছে। তাছাড়া আছে মন্দির কমিটির নিজস্ব রক্ষীও।

সম্পর্কিত সংবাদ