শার্প শুটার আসগরের গুলিতে মৃত্যু অবনীর

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়েব ডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ গুলি করে মেরে ফেলা হল অবনী নামে একটি বাঘিনীকে। ২ রা নভেম্বর রাতে অবনীকে গুলি করে মারা হয় মহারাষ্ট্রের যবতমল এলাকায়। মহারাষ্ট্রের পান্ধারকাওড়া জঙ্গল আর তার আশপাশের এলাকায় গত ২ বছরে কমপক্ষে ১৩ জন অবনীর পেটে যায় বলে জানা যাচ্ছে। অবনীর মৃত্যুর খবর আসতেই বাসিন্দারা উল্লাসে মেতে ওঠে।

১১ ই সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্ট অবনীকে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ (অফিসিয়ালি টি-১ বলা হয়) দিয়েছিল। বন্য প্রাণীদের অধিকার রক্ষা কর্মীরা অবনীকে জীবিত ধরার নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিল। যদিও সেই আবেদন খারিজ করে দেয় শীর্ষ আদালত। গত বছরে পাঁচজন গ্রামবাসীকে মেরে ফেলার খবর সামনে আসার পরই অবনীর খোঁজ শুরু হয়। যদিও বাঘিনীকে জীবিত ধরার দাবিতেও আন্দোলন শুরু হয়। ৯ হাজারেরও বেশি মানুষ পিটিশনে স্বাক্ষর করে।

শেষ পর্যন্ত এদিন রাতে শার্প শুটার আসগর আলি অবনীকে গুলি করে হত্যা করেন। মহারাষ্ট্রের বন দপ্তরের এক কর্তা বলেন, “রাত প্রায় ১১টার দিকে আমাদের এক কর্মী ঘুমপাড়ানি বন্দুক দিয়ে বাঘিনীর শরীরে একটি ডার্ট বিদ্ধ করতে সক্ষম হন। কিন্তু, সে অজ্ঞান না হয়ে দলটির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। দলে থাকা আসগর এরপর গুলি করে। এক গুলিতেই বাঘিনী মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।”

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, বাঘ সাধারণত মানুষকে আক্রমণ করে না। তবে তারা যদি একবার মানুষের মাংসের স্বাদ পায় তবেই আক্রমণ করে। ২০১৪ সালে গণনা অনুযায়ী, বিশ্বে মোট বাঘের সংখ্যার অর্ধেকের বেশি ভারতে রয়েছে। দেশে বাঘের সংখ্যা ২ হাজার ২২৬টি।

সম্পর্কিত সংবাদ