দীপাবলির আগে ভিন রাজ্যে পারি দিচ্ছে রাজ্যের প্রদীপ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

শান্তনু বিশ্বাস, দওপুকুরঃ মাটির জিনিস বলতে বোঝায় উত্তর ২৪ পরগনার দত্তপুকুরের চালতাবেড়িয়া এলাকার টেরাকোটা শিল্পের শিল্প সত্তার পরিচিতি পেয়েছে বিশ্বের দরবারে। বাঙ্গালীর বারো মাসে তেরো পার্বণ। তেমনি একটি পার্বণ দীপাবলির আলোর উৎসব। আর তাই দীপাবলির আগে কাজের চাপে খাওয়া ঘুম ছেড়েছে এই সকল মৃৎ শিল্পীরা। প্রায় ৮০টিরও বেশী পরিবার এখন ব্যস্ত রং বেরংয়ের প্রদীপ তৈরির কাজে। এমনকি তাদের কাজে হাত লাগিয়েছে বাড়ির গৃহবধূ,৬০ ঊর্ধ্ব বৃদ্ধার পাশাপাশি কলেজ পড়ুয়াও।

মৃৎ শিল্পী শ্রীদাম পালের বক্তব্য, “আমরা যে পরিমানে কষ্ট করে প্রদীপ তৈরি করি তার উপযুক্ত পারিশ্রমিক আমরা পাই না, যারা আমাদের কাছ থেকে পাইকারি কিনে বিক্রি করে মূলত তারাই লাভের মুখ দেখে। আর বর্তমানে কলকাতায় প্রদীপের চাহিদা তেমন ভাবে নেই যেটুকু আছে তা ভিন্ন রাজ‍্যে।


টেরাকোটা শিল্পের মালিক কমল কৃষ্ণের বক্তব্য, মূলত আমাদের প্রদীপের চাহিদা ভিন রাজ্যেই বেশি যেমন দিল্লী, মুম্বাই, ওড়িষা, পুনে, নাকপুর এছাড়াও দেশের বাইরেও যাচ্ছে সিঙ্গাপুর, সৌদিআরবের মত দেশে।

অপরদিকে মাধমগ্রাম এ.পি.সি. কলেজের প্রথম বর্ষের ইতিহাসের ছাত্র শঙ্কর সিকদারের তুলির শেষ টানে রংবেরঙের প্রদীপ সেজে উঠছে আলোর উৎসবের জন্য। তাঁর বক্তব্য, আমার বাবা পেশায় কাঠ মিস্ত্রী, প্রতিবছর দেওয়ালির আগে পুজোর হাত খরচের পাশাপাশি পড়াশুনার খরচের জন্য এই কাজ করে থাকি।

সম্পর্কিত সংবাদ