বসিরহাটে ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অর্ণব মৈত্র, বসিরহাটঃ  বসিরহাট আশ্রম পাড়ার বাসিন্দা প্রশান্ত কুমার মল্লিক। গত ২০০০ সালের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত তার ঘর ভাড়া নিয়েছিল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার বসিরহাট বিরামনগর শাখা। গত ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে ওই ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে যায় ওই ব্যাঙ্ক। চুক্তির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ার পর থেকেই প্রতারণা করা হচ্ছে বলে ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন বাড়িওয়ালা প্রশান্ত কুমার মল্লিক। চুক্তির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ার পর থেকে ঘর ছাড়া পর্যন্ত কোনও চুক্তি ছাড়াই ঘর দখল করে রাখে বলে অভিযোগ তোলেন ঘর মালিক। ব্যাঙ্ক অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হলেও ঘর খালি করে বুঝিয়ে দেওয়া হয়নি ঘর মালিককে। ঘর মালিক এর থেকে কোন রকম নো অবজেকশন সার্টিফিকেট না নিয়ে ঘরে তালা লাগিয়ে চলে যায় ব্যাঙ্ক। চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরে ঘর মালিকের অমতে কিছুদিন ব্যাঙ্ক মারফত ভাড়ার টাকা মেটানো হলেও গত ১১ মাস কোন ভাড়া দেওয়া হচ্ছে না বলে ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন ঘর মালিক।

ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ তুলে ঘর মালিক প্রশান্ত কুমার মল্লিক বলেন, “চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে থেকেই পুনরায় চুক্তি করার জন্য আবেদন জানিয়েছিলাম ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছে। কিন্তু কোন চুক্তি ছাড়াই এখনো পর্যন্ত ঘর আটকে রেখে অন্যত্র ব্যাঙ্ক সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চুক্তির পরে অতিরিক্ত সময়ে ঘর আটকে রেখে দেওয়ার জন্য ধার্য করা বিল রিসিভ করলেও তা পেমেন্ট করা হচ্ছে না ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে “। এবিষয়ে ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার বিরামনগর শাখা থেকে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ পর্যন্ত সমস্ত জায়গায় জানিয়েও ফল না হওয়ায় ২৯ শে অক্টোবর সোমবার সকালে তালাবন্ধ ব্যাঙ্কের পুরনো ঘরের সামনেই প্লাকেট হাতে বিক্ষোভ দেখান প্রশান্ত মল্লিক ও তার স্ত্রী সুজাতা মল্লিক।

ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে ওঠা প্রতারণার অভিযোগের বিষয়ে কথা বললে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার অর্ণব রায়চৌধুরী জানান, ” আমি এখানে পোস্টিং হয়ে আসার অনেক আগে থেকেই এই ঘটনা। এ বিষয়টা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মেনে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে “।

সম্পর্কিত সংবাদ