পালিয়ে গিয়ে বিয়ে,মেনে নেবার কথা বলে দম্পতিকে ফিরিয়ে এনে জামাইকে মারধর

Spread the love
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

 

জয় চক্রবর্তী, বাগদাঃ দুদিন আগে বিয়ে করে পালিয়েছিল প্রেমিক প্রেমিকা। মেনে নেবার কথা বলে নবদম্পতিকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনার পথে নতুন জামাইকে বেধড়ক মারধর করে গাড়ি থেকে রাস্তায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ মেয়ের বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন যুবক। ঘটনাটি ঘটে ১০ই অক্টোবর বুধবার রাত ৮ টা নাগাদ বাগদা থানার রণঘাট পঞ্চায়েতের কুলিয়া এলাকার।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক প্রতাপ মান্না ও জবা বাগ নামে এই দুই যুবক যুবতির ৷ দুজনেই সবালক। কিন্তু তাদের বাড়িতে মেনে নেবে না এই সম্পর্ক ,বুঝতে পেরে ৯ই অক্টোবর মঙ্গলবার অন্যত্র পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে তারা । এরপর বুধবার জবার পরিবারে পক্ষ থেকে প্রতাপের পরিবারের কাছে বলা হয় সব কিছু ভুলে গিয়ে তাদের মেনে নেবার কথা এবং জবার পরিবারের লোকজন ও প্রতাপের বাবা তাদের আনতে যায় একটি মারুতি গাড়ি করে।

অভিযোগ, বুধবার রাত ৮ টা নাগাদ প্রতাপের বাড়ির সামনে এসে গাড়ি দাড়াতেই প্রতাপের বাবা মহেন্দ্র মান্না প্রথমে গাড়ি থেকে নামে, এরপর হুট করে গাড়ি নিয়ে চম্পট দেয় জবার পরিবারের লোকেরা। কিছুটা দুরে গিয়ে প্রতাপকে রক্তাক্ত অবস্থায় গাড়ি থেকে লাথি মেরে ফেলে দেয় বলে অভিযোগ। ইতিমধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বাগদা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রতাপ।

প্রতাপের বাবা মহেন্দ্র মান্না বলেন, “মেয়ের বাড়ি থেকেই আমাদের মেনে নেওয়ার প্রস্তাব পাঠায় এবং তারপরই আমরা উভয় পরিবার মিলে ওদের আনতে যাই। গাড়ির ভেতর আমার ছেলেকে লোহা দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলার চেষ্টা করে আর জবাকে নিয়ে পালিয়ে যায়। ওদের এমন পরিকল্পনা ছিল বুঝতে পারিনি।” ঘটনার পর জবার পরিবারের সাত জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মহেন্দ্র মান্না। ঘটনার তদন্তে বাগদা থানার পুলিশ।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment