“যুব শক্তির মানস” – ব্যারাকপুরের প্রাচীন সার্বজনীন দুর্গাপূজার মধ্যে একটি

Spread the love
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares

 

১৯৭৭ সাল, আজ থেকে দীর্ঘ ৪০ বছর আগের কথা। ব্যারাকপুর চিড়িয়ামোড়ে তখন আজকের মতন এত জন বসতি চোখে পরতো না। ব্যারাকপুরের প্রাণকেন্দ্র চিড়িয়ামোড়ের উপর ওয়েলেসলি হিন্দি হাই স্কুল ও তার সামনে ফাকা মাঠ। এই সম্পূর্ণ জায়েগাটাই শোনা যায় স্থানীয় চার্চের। এলাকার মানুষরা ১৯৭৭ সালে ঠিক করে এলাকায় একটা সার্বজনীন দুর্গোৎসব আয়োজিত করবে। যেমন কথা তেমনই কাজ। চার্চের থেকে একটি অনুমতি নিয়ে স্কুলের সামনে ফাকা জমির উপর আয়োজিত হল দুর্গা পূজা, নাম “যুব শক্তির মানস”।


সেই থেকে আজ অবধি প্রতি বছর ঐ একই স্থানে ঘটা করে আয়োজিত হয়ে চলেছে “যুব শক্তির মানসে” এর দুর্গাপূজা। এলাকার খুব কাছ দিয়ে গঙ্গা বয়ে চলায় সময়ের হাত ধরে অনেক জল ইতিমধ্যেই বয়ে গেছে গঙ্গা দিয়ে। ধীরে ধীরে এই সার্বজনীন দুর্গাপূজার শ্রীবৃদ্ধি ঘটেছে।

বর্তমানের থিমের যুগে এই পূজাও বিগত কয়েক বছর ধরে থিম কেন্দ্রিক আয়োজনের দিকে নজর দিয়েছে, যেমন গত বছরের আয়োজন ছিল গুজরাতের অক্ষরধামের আদলের পূজা মণ্ডপ। আর এবার তাদের থিম হল মায়াপুরের ইস্কনের “চন্দ্রদয় মন্দির”।

এবারের এই সার্বজনীন দুর্গাপূজার প্রধান পৃষ্টপেষক হলেন ব্যারাকপুর পৌরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও এম.আই.সি শুপ্রভাত ঘোষ। প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও এই দুর্গাপূজাকে ঘিরে আয়োজিত হতে চলেছে এক বিরাট মেলা। নিচে এই পূজা দেখার জন্য আসার পথনির্দেশ দেওয়া হল সকলের সুবিধার্থে।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment