শিক্ষকের মারে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, দেগঙ্গাঃ মাএ পড়ার বইতে পেনের দাগ দেওয়ার অপরাধে, ডাস্টার দিয়ে বেধড়ক মারে চিকিৎসাধীন সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটে উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গা থানার অন্তরগর্ত চৌরাশি উচ্চবিদ্যালয়ে। প্রতিদিনের মতো শনিবার স্কুলে যায় সপ্তম শ্রেণীর ওই ছাত্রী। স্কুলে যাওয়ার পর ক্লাসে বসে তার পাঠ্য পুস্তকে পেন দিয়ে দাগ টানছিলো। এমন সময় ক্লাসে প্রবেশ করে বাংলা শিক্ষক রঞ্জন কুমার বিশ্বাস। ওই ছাত্রী পাঠ্য পুস্তকে দাগ দিতে দেখে, তাকে কাঠের ডাস্টার দিয়ে ও হাত দিয়ে বেধড়ক মারধোর করে। ডাস্টার ও হাত দিয়ে মারার ফলে ওই ছাত্রীর কানে আঘাত লাগে। এরপর আহত ছাত্রী ক্লাসে অসুস্থ হয়ে পড়ার বেশ কিছু সময়ের পর খবর দেওয়া হয় বাড়িতে। খবর পেয়ে ছুটে আসে তার বাবা আমিনুল হক। সঙ্গে সঙ্গে তিনি তার অসুস্থ মেয়ে কে নিয়ে বিশ্বানাথপুর প্রাথমিক হাসাপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে নিয়ে যাওয়া হয় বারাসাত হাসপাতালে। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পর জানা যায় যে, তার কানের পার্দায় আঘাত লেগেছে। তার জেরে জ্বরও আসে বলে জানা যায়। এরপর ওই ছাত্রীর বাবা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে দেগঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ছাত্রীর বাবা আমিনুল হক এ বিষয় বলেন, “এই শিক্ষক, এর আগেও অনেক ছাত্র-ছাত্রীদের এই ভাবে মারধর করেছে, আমি এর উপযুক্ত বিচার চাই।” ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

সম্পর্কিত সংবাদ