গোবরডাঙায় লড়ির চাকায় পিষ্ট ১

গোবরডাঙায় লড়ির চাকায় পিষ্ট ১

শান্তনু বিশ্বাস, হাবড়া:

২০ শে ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যেবেলা গোবরডাঙা ১নম্বর রেলগেট এলাকার এক বাসিন্দার লড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়। মৃতের নাম হরিচাঁদ মালাকার (৫৭)। তবে এই ঘটনায় খুনের অভিযোগ মৃতের পরিবারের বিরুদ্ধে।

সুত্রের খবর, ঘটনার দিন দুপুরে হরিচাঁদ মালাকার ওরফে পাগলের পেটে কাচি ঢুকিয়ে দেয় মৃতের স্ত্রী দ্বীপু মালাকার। এরপর গোবরডাঙ্গার ইডেন নার্সিংহোমে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায় হরিচাঁদ বাবুর স্ত্রী। কিন্তু তার অবস্থা খারাপ হওয়ায় নার্সিংহোমের পক্ষ থেকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য রেফার করা হয়। তবে সেক্ষেত্রে হরিচাঁদ বাবুর স্ত্রী দ্বীপু মালাকার অন্যত্র না নিয়ে গিয়ে অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে নিয়ে আসেন। এমনটাই অভিযোগ করেন মৃতের বোন নমিতা পান্ডে ও বোনাই দিনেশ পান্ডে। তাহলে এখন প্রশ্ন একটাই যদি হরিচাঁদ মালাকার ওরফে পাগল জখম ছিলেন তবে কি করে বাড়ির সামনের রাস্তায় গিয়ে দূর্ঘটনার স্বীকার হলেন? এক্ষেত্রে মৃতের বোন ও বোনাইয়ের অভিযোগ সম্পত্তির লোভেই তাকে খুন করা হয়েছে। অপরদিকে মৃতের স্ত্রীর অভিযোগ, নিজের পেটেই নিজে কাচি ঢুকিয়ে দেয় তারপর রাস্তায় বেড়িয়ে লড়ির নিচে পরে মৃত্যু হয় তাঁর।

উল্লেখ্য এই ঘটনার পরই মৃতের বোন ও বোনাই হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে যান কিন্তু হাবড়া থানায় অভিযোগ না নিয়ে তাদের গোবরডাঙা ফাড়িতে অভিযোগ দায়ের করার জন্য বলেন। অবশেষে মাঝরাতে তারা গোবরডাঙা ফাড়িতে অভিযোগ দায়ের করেন। বর্তমানে গোটা ঘটনার তদন্তে গোবরডাঙা ফাড়ির পুলিশ।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.