অবশেষে ১ বছর পূর্বে রাজ্য সরকারের জল প্রকল্পের পাইপ চুরি যাওয়ার ঘটনার কিনারা করলো বনগাঁ থানার পুলিশ

Spread the love
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

 

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ গঙ্গা জল আসার জন্য একটি মাঠে পাইপ মুজত করা হয়। কিন্তু পাইপটি গত ১ বছর আগে চুরি হয়। সেই বনগাঁ পৌরসভার পাইপ চুরির ঘটনার কিনারা করলো বনগাঁ থানার পুলিশ। শুক্রবার রাতে তল্লাশি চালিয়ে লিলুয়া থানা এলাকার একটি গোডাউন থেকে চুরি যাওয়া জলের পাইপ উদ্ধার করলো পুলিশ। বনগাঁ থানার আই সি সোমনাথ চ‍্যাটার্জী জানান, ৫৭৭ টি চুরি যাওয়া জলের পাইপ উদ্ধার করা হয়েছে। যার বাজার মুল্য ৪০ লক্ষ টাকা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় গোডাউনের ম্যানেজার সহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের নাম হাবিবুর রহমান (৩৮), নাজিমউদ্দিন শেখ (৬০), হাসান শেখ (২৬), হুমায়ুন শেখ (৩৬) এবং গিরিশ পান্ডে (৪৭)। গিরিশ পান্ডে গোডাউনের ম্যানেজার। শনিবার ধৃতদের হাজির করা হয়েছে বনগাঁ আদালতে। পুলিশ জানিয়েছে ৪ জন অভিযুক্তকে পুলিশি হেপাজতে নেওয়া হয়েছে। ম্যানেজারের জেল হেফাজত হয়েছে। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানার চেস্টা করা হচ্ছে এই চুরির সাথে আর কেউ যুক্ত আছে কি না। পুলিশ জানিয়েছে গত বছর ডিসেম্বর মাসে বনগাঁ পৌরসভার এই পাইপ গুলি চুরি হয়েছিল। পুরসভা সুত্রে জানা যায়, রাজ্য সরকারের জল প্রকল্পের জন্য বনগাঁ পৌরসভা এই পাইপ গুলি কিনেছিল। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ঘরে ঘরে পরিশুদ্ধ পানিয় জল প্রকল্পের জন্যই এই পাইপ গুলি বসানো হয়েছিল। গত ডিসেম্বর মাসে পুরসভার পক্ষ থেকে জলের পাইপ চুরির লিখিত অভিযোগ জানানো হয় বনগাঁ থানায়, তার কিনারা হল অবশেষে। পুলিশ লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে। গোপন সুত্রে খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম লিলুয়া থানার কোনা হাইওয়ের ধারে একটি গোডাউনে হানা দেয়। সেখান থেকেই ৫৭৭ টি জলের পাইপ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ৬ টি লড়ি করে সেগুলো বনগাঁয় নিয়ে আসা হয়েছে। এই জলের পাইপ গুলি গোডাউনে রেখেই রাসায়নিক মিশিয়ে পাইপের অরিজিনাল কালার তুলে ফেলা হয়েছিল। ঐ গোডাউন থেকে কয়েকটি মেশিন এবং রাসায়নিক বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত চার জনের বাড়ি মুর্শিদাবাদ জেলার রানিতলা এবং ভগবানগোলা থানার অন্তরগর্ত নশিপুরে এলাকায়। বনগাঁ থানার পুলিশ পাইপ গুলি শনাক্ত করার পর পৌরসভার হাতে তুলে দেয়।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment