সোশ্যাল মিডিয়ার সূত্র ধরে প্রায় দেড় বছর পর ঘরে ফিরলেন বৃদ্ধা

সোশ্যাল মিডিয়ার সূত্র ধরে প্রায় দেড় বছর পর ঘরে ফিরলেন বৃদ্ধা

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, উমা বিশ্বাস (৬০) নামে এক বৃদ্ধাকে বনগাঁ স্টেশন চত্বরে অসুস্থ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে হাসপাতলে দিয়ে যায় জিআরপি পুলিশ। দীর্ঘ চিকিৎসার পরও মাথায় আঘাত লাগার কারণে উনি কিছুই চিনতে পারছিলেন না৷ এরপর হাসপাতালের সার্জিকাল ওয়ার্ডই হয়ে ওঠে তার একমাত্র ঠিকানা। বনগাঁ হাসপাতালের চিকিৎসক এবং নার্সরা তাঁর বিভিন্ন রকম মানসিক ও শারীরিক চিকিৎসা চালাতে থাকে। বেশ কয়েক মাস আগে বৃদ্ধা তার নাম বলেছিলেন উমা বিশ্বাস, বাড়ি কৃষ্ণনগরে ও ছেলের নাম অপূর্ব বিশ্বাস। হাসপাতালের সিস্টারদের মধ্যে কমলিকা বিশ্বাস নামে এক সিস্টার একটি ফেসবুক একাউন্ট খুলে, অপূর্ব বিশ্বাস নামে কৃষ্ণনগরে যত ব্যাক্তি পেয়েছেন তাদের প্রত্যেককেই ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠান। সম্প্রতি অপূর্ব বিশ্বাসের এক বন্ধু ফেসবুকে একটি পোস্ট লাইক করলে তার সূত্র ধরে সেই বন্ধুর মাধ্যমে অপূর্বর ঠিকানা এবং ফোন নম্বর জোগাড় করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷

হাসপাতালের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে অপূর্ব বিশ্বাস ছবি দেখে চিনতে পারে মাকে ৷ ১৩ই সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকালে কৃষ্ণনগর থেকে অপূর্ব বিশ্বাস ছুটে আসেন বনগাঁ হাসপাতালে মা কে নিয়ে যাওয়ার জন্য ৷ ১.৫ বছর পর মাকে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। বৃদ্ধাকে ফিরিয়ে দিতে পেরে খুশি হাসপাতালের ডাক্তার সহ সমস্ত কর্মীরা। তারা বলেন, একজন ভালো মানুষ এতদিন ছিলেন চলে যাচ্ছেন, কিন্তু তার ছেলের কাছে ফিরে যাচ্ছে এতে আমরা খুব খুশি। বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালের চিকিৎসক জি পোদ্দার বলেন, ২০১৭ সালের মে মাসে, জিআরপি-র পক্ষ থেকে তাদের কাছে উমা বিশ্বাস নামে এক অসুস্থ বৃদ্ধাকে দিয়ে যাওয়া হয়েছিল। দীর্ঘ চিকিৎসার পর এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তার ছেলের সাথে যোগাযোগ করে আজকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে তারা খুব খুশি।

You May Share This
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.