এন ডি এ সরকার পূর্বতন ইউ পি এ সকারের ইস্যু করা ১.৩০ লক্ষ কোটি টাকা শোধ করে যাচ্ছেঃ পীযূষ গোয়েল

Spread the love
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

নিজস্ব প্রতিনিধি, দিল্লিঃ অর্থ দপ্তরের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল বলেছেন “তেলের ঋণপত্র বাবদ যে ১,৩০,৯২৩ লক্ষ কোটি টাকা এপ্রিল ২০১৮ অব্দি বাকি আছে, তা ২০২২ থেকে ২০২৬ সালের মধ্যে শোধ করা হবে এবং ২০১৪ থেকে ২০১৮ অব্দি শুধু ঋণের সুদ বাবদ ৪০,২২৬ কোটি টাকা শোধ করতে হয়েছে। ভারতের অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব প্রাপ্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল আরও বললেন, এন ডি এ সরকার পূর্বতন ইউ পি এ সকারের ইস্যু করা ১.৩০ লক্ষ কোটি টাকা শোধ করে যাচ্ছে “আমরা এই মুহূর্তে ১.৩০ লক্ষ কোটি টাকার তেলে ঋণ পত্রের বোঝা উত্তরাধিকার সূত্রে পেয়েছি, যা আমরা মাথায় নিয়ে চলছি। যা পূর্বতন ইউ পি এ সরকার ২০০৯-২০১৪ সাল অব্দি দেশের তেল কোম্পানি গুলোকে মেটায় নি।

বিপুল পরিমানে অর্থ কেরোসিনে, রান্নার গ্যাসে, সার, খাদ্য নিশ্চয়তা প্রকল্পে, কেন্দ্রীয় বিক্রয় করের উপরে রাজ্যের প্রাপ্ত অধিকারের টাকা শোধ করে নি আগের ইউ পি এ সরকার”। ষষ্ঠ বার্ষিক গ্রোথ নেট সামিট যার যুগ্ম আয়োজক কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রি (সিআইআই), দা আনান্তা সেন্টার ও স্মাদ্যা এন্ড স্মাদ্য-র এই আলোচনা সভাতে এসে তিনি এই কথা বলেন। তিনি সমালোচনার সুরে বলেন, কেন্দ্রীয় বিক্রয় করের উপরে রাজ্যের প্রাপ্ত অধিকারের টাকা শোধ করে নি ইউ পি এ সরকার অনেক বছর ধরে। গোয়েল আরও বলেন, ভারতবর্ষ ১০% জি. ডি. পি. তে পৌঁছতে পারতো এই বছরের লাস্ট তিন মাসে “আমি দেখছি দু অঙ্কের সংখ্যার উন্নয়ন হচ্ছে এই আর্থিক বর্ষের চতুর্থ কোয়ার্টারে। এই বৃদ্ধির সূচক এই মুহূর্তের চাহিদা এবং এই বৃদ্ধি সমাজের উন্নয়নের শক্তি হতে পারে যা অনেক সম্ভাবনা তৈরি করছে। এখানে একটাই বাধা, যখন এই দেশ সততার সাথে ব্যবসা করার চিন্তা করছে আমরা তখন ১০% জি. ডি. পি. তে পৌঁছতে পারবো। আমরা দৃষ্টি দিয়েছি যাতে আমরা এমন কিছু না করি যা আমাদের সমাজের সামাজিক গঠন কে আঘাত করে। কিভাবে আমরা সমগ্র দেশকে বৃদ্ধি আর উন্নয়নের দিকে নিয়ে যেতে পারি, এটা আমাদের প্রচেষ্টা এই বিগত চার বছরের। রাজস্ব ঘাটতি এই বছরের ৩.৩% মধ্যে বেঁধে দেওয়ার লক্ষ্য মাত্রা নিয়েছি আমরা। এই নির্বাচনী বছরেও আমরা এই লক্ষ্য মাত্রা কে পূরণ করতে বদ্ধ পরিকর।

সম্পর্কিত সংবাদ