বনগাঁর চাপাবেরিয়া এলাকার একটি পুকুর থেকে উদ্ধার হল এক কুখ্যাত দুষ্কৃতীর মৃতদেহ

Share Bengal Today's News
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    11
    Shares

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ ১৪ই জুলাই, শনিবার সকালে বনগাঁ থানার চাপাবেরিয়ার একটি পুকুরের ভিতর থেকে এক কুখ্যাত দুষ্কৃতীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়ে এলাকায় আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়। মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে বনগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম অসীম ভট্টাচার্য্য (৫০), চাপাবেড়িয়া এলাকার বাসিন্দা। ঘটনার প্রকাশ, অসীমের বিরুদ্ধে বনগাঁ থানা সহ জেলার একাধিক থানায় খুন সহ ১২ টি অপরাধ মূলক অভিযোগ নথিভুক্ত রয়েছে, মাত্র ৬ দিন আগেই সে জেল থেকে জামিনে ছাড়া পায়। পুলিশ জানিয়েছে, ১৪ই জুলাই, শনিবার ভোর ৪ টে নাগাদ কেউ একজন তাকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায়, এরপর সকাল ৮ টা নাগাদ পুলিশের কাছে খবর আসে এলাকার একটি পুকুরের ধারে রক্তের দাগ রয়েছে।

বনগাঁ থানার পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে পুকুরের জল থেকে একটি মৃতদেহ উদ্ধার করলে, পরে জানা যায় মৃত দেহটি অসীমের। মৃতের কপালে আঘাতের চিহ্ন, গলায় ফাঁস এবং মাথার পেছনে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে বছর কয়েক আগে ওই এলাকার এক ফুটবলার “শক্তি দে” খুন হয়, সেই খুনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত অসীম পরবর্তীতে শক্তির দাদা দিলীপ দে কে খুন করে এর পরে হিমাংশু বৈরাগী ওরফে হিমের খুনেও অসীমের নাম উঠে আসে। বনগাঁ এবং অশোকনগর থানা মিলিয়ে যে ১২ টি মামলা তার বিরুদ্ধে রয়েছে তার মধ্যে ৪ টি খুন, ৫টি ডাকাতির উদ্দেশ্যে জরো হওয়া এবং আর্মস সহ ২ টি মাদক আইনের মামলাও তার বিরুদ্ধে নথিভুক্ত রয়েছে, ওই এলাকার আরেক দুষ্কৃতী, সুজয় ভট্টাচার্যের দলের সঙ্গে তার বিবাদ দীর্ঘ দিনের৷ অসীম এবং ওই দলের এই রেষারেষিতে এলাকার মানুষ সব সময় তটস্থ থাকতেন।

অসীম খুনের ঘটনার পর এলাকায় চাপা আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। স্থানীয় মানুষ এ ব্যাপারে কেউই কোনো মুখ খুলতে রাজি নয়, ১৩রা জুলাই, শুক্রবার রাতে এলাকার এক বাসিন্দা মন্টু শাহ এবং তার পরিবারের সঙ্গে বিবাদে জড়ায় অসীম। অভিযোগ রাতে মন্টুর বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায় সে এবং তার মাকে মারধর করে। এই ঘটনার পর অসীম তার নিজের আস্তানায় চলে যায় এবং রাতে মদ্যপান করে। ওই ঘটনায় অসীমের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়, এর পরেই এদিন সকালে তার মৃতদেহ উদ্ধার হয় এলাকার একটি পুকুর থেকে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ, দেহটি ময়না তদন্তের জন্য বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ