হাবড়ায় শিলান্যাস হল বৈদ্যতিক চুল্লি সহ কৃর্তী মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক ছাত্র-ছাত্রিদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান

হাবড়ায় শিলান্যাস হল বৈদ্যতিক চুল্লি সহ কৃর্তী মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক ছাত্র-ছাত্রিদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান

শান্তনু বিশ্বাস, হাবরাঃ উওর ২৪ পরগনার হাবরা-অশোকনগরের শহর বাসীর জন্য একের পর এক মানুষের চাহিদা মিটাতে উন্নয়ন হয়েই চলছে। যার দরুন খুশিতে আপ্লুত গোটা শহর সহ রাজ্য বাসী। একটি শিশু জন্মানোর আগে থেকে মাতৃত কালিন নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা সহ বিনা মূল্যে নিশ্চয় যান এবং শিশু জন্মানোর পর আরো নানা রকম সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন বহু মানুষ। শিশুটি বড়ো হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পড়াশোনা সহ বিভিন্ন রকমের পরিষেবা তো আছেই। পড়াশুনা শেষ করার পর নিজে স্বনির্ভর হওয়ার জন্য সুনির্দিষ্ট পথ দেখানো, বৃদ্ধ কালে পেনশান, মারা যাওয়ার পর পরিবার কে আর্থিক সাহায্য করা পর্যন্ত। নানারকম সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে মানুষজন উন্নয়নের মাধ্যমে রাজ্য সরকারের থেকে। কেউ মারা গেলে তার প্রতি সব দ্বায়িত্ব এখানেই শেষ হচ্ছে না, তার মৃত্যু যাত্রা টা জেনো ভালো হয় তার জন্য সে দ্বায়িত্ব টাও সরকার নিজের ঘাড়ে নিয়েছে। তাই প্রতিটি শহরে একটি করে বৈদ্যুতিক চুল্লি যুক্ত শ্মশান তৈরী করেছে সরকার। ইতি মধ্যে মধ্যমগ্রাম, বারাসত সহ বনগাঁয় শ্মশান তৈরীও হয়ে গেছে।

[espro-slider id=10880]

এই রকম শ্মাশানের চাহিদা ছিলো উত্তর ২৪ রগণার হাবড়া-অশোকনগর শহর বাসীর। আর সেই চাহিদা মেটাতে হাবড়া-অশোকনগরের বিধায়কের উদ্যগে তৈরী হতে চলেছে দূষণ মুক্ত বৈদ্যুতিক চুল্লি যুক্ত মহাশ্মশান। এই মহাশ্মশানের শিলান্যাস অনুষ্ঠান হলো ৭ই জুলাই, শনিবার বিকেলে। এই শিলান্যাস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাবড়ার বিধায়ক তথা রাজ্যর খাদ্য সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, বারাসাতের সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, অশোকনগরের বিধায়ক ধীমান রায়, অশোকনগরের পৌর প্রধান প্রবোধ সরকার, নিলিমেষ দাস সহ আরও অনেকে। পৌর প্রধান প্রবোধ সরকার বলেন, “আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এই শ্মশানের কাজ সমাপ্ত হয়ে যাবে, হাবড়া-অশোকনগরের লক্ষ্যাধিক লোকেরা এই শ্বাশান তৈরীর ফলে উপকৃত হবে। অন্য দিকে বৈদ্যুতিক চুল্লির শিলান্যাস এর পাশাপাশি হাবড়া ও অশোকনগর শহরে ৮৫%-র বেশী নম্বর পেয়ে উত্তিন হওয়া মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক কৃর্তী ছাত্র-ছাত্রীদের সম্বর্ধনা জানানো হল কলতানে। মাধ্যমিকে চথুর্ত স্থান অধিকারী কে সম্বর্ধনা সহ ল্যাপটপ দেওয়া হয়। এবং আরও বেশ কিছু ছাত্র-ছাত্রীদের সম্বর্ধনা ও পুরস্কার দেওয়া হয়। প্রায় ৭০০ ছাত্র-ছাত্রীদের সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। 

You May Share This
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *