হাসনাবাদ ইছামতি নদীর জলে পরে নিখোঁজ এক প্রতিবন্ধী নাবালিকা, যাত্রী পারাপারের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে ফেরী

হাসনাবাদ ইছামতি নদীর জলে পরে নিখোঁজ এক প্রতিবন্ধী নাবালিকা, যাত্রী পারাপারের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে ফেরী

 

শান্তনু বিশ্বাস, হাসনাবাদঃ আর পাঁচটা দিনের মতো ২৭শে জুন, বুধবার সকালে বেরিয়েছিল প্রতিবন্ধী পিঙ্কি। উওর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ পঞ্চায়েতের রাজনগর গ্রামের বাসিন্দা পিঙ্কি ছিল শারিরীক ভাবে প্রতিবন্ধী। বিকল ডান হাত ও ডান পা নিয়ে হাসনাবাদ শাখায় ট্রেনে ভিক্ষা করে কনো রকমে ভাবে দিন যাপন করত পিঙ্কি। হাসনাবাদ ঘাট থেকে সকাল ৮ টা নাগাদ নৌকায় করে নদী পার হওয়ার সময় আচমকাই মাঝ নদীতে নৌকা থেকে পড়ে যায় সে, এবং ইতি মধ্যেই জলে তলিয়ে যাওয়ায়, তাকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হন নৌকা চালকরা।

পরে তাকে উদ্ধার করতে ইছামতীতে যৌথ ভাবে খোঁজ শুরু করে হাসনাবাদ থানার পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দলের কর্মীরা। এদিন বিকাল পর্যন্ত তার কোনও খোঁজ মেলেনি বলে জানা যায় পুলিশের পক্ষ থেকে। হাসনাবাদ ফেরীর বিরুদ্ধে ইছামতি নদীতে অস্বাভাবিক যাত্রী বহনের অভিযোগ, এর আগেও বেশ কিছু বার শোনা যায়।

প্রসঙ্গত, হাসনাবাদের রাজনগর গ্রামে দাদু সুবল দেবনাথের পৈত্রিক ভিটেতে থাকত পিঙ্কি। ছোটবেলায় বাবার মৃত্যুর পরে ছোট ভাই আর মা তাকে ছেড়ে অন্যত্র বিয়ে করে চলে যায়। সেই থেকে দাদুর আশ্রয়ে থেকে ডান অঙ্গ বিকল অবস্থায় হাসনাবাদ শাখার ট্রেনে ভিক্ষা করে কনো রকম পেট চালাত সে। এদিনের ঘটনা ঘটার পর আরও একবার প্রশ্ন উঠলো যাএীদের নিরপত্তা নিয়ে।

You May Share This
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *