বাংলাদেশে রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক ক্রিমিনাল কোর্টের শুনানি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেঙ্গলটুডে প্রতিনিধি, ঢাকা: পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রের এক তথ্যতে জানিগিয়েছে, রোহিঙ্গা সঙ্কট ইস্যুতে আন্তর্জাতিক ক্রিমিনাল কোর্টে (আইসিসি) বাংলাদেশের আনুষ্ঠানিক অভিমতের পরিপ্রেক্ষিতে শুনানি শুরু হওয়ার কথা ছিল। নেদারল্যান্ডে আইসিসির সদর দপ্তরে বুধবার থেকে এই শুনানি শুরু হবে।

আইসিসির প্রি-ট্রায়াল চেম্বারে এ বিষয়ে শুনানি হবে। এ সময় আইসিসির প্রসিকিউটর ফেতো বেনসুদা উপস্থিত থাকবেন। জানাগিয়েছে, গত ১১ই জুন চলমান রোহিঙ্গা সঙ্কট ইস্যুতে আন্তর্জাতিক ক্রিমিনাল কোর্টের (আইসিসি) অনুরোধে সাড়া দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে অভিমত জমা দেয় বাংলাদেশ। আইসিসির সদর দপ্তরে আদালতের রেজিস্ট্রার পিটার লুইসের কাছে এই অভিমত জমা দেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শেখ মোহাম্মাদ বেলাল।

জাতিসংঘের কর্মকর্তারা দীর্ঘদিন ধরে মিয়ানমারে সংঘটিত অপরাধের বিষয়ে দায়বদ্ধতার বিষয়টি তুলে ধরছিলেন। এ কারণে বেনসুদা এই ইস্যুটি কোর্টের সামনে নিয়ে আসেন বলেও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানাগিয়েছে।

এর আগে আইসিসির প্রি-ট্রায়াল চেম্বার গত ৭ই মে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিচারের বিষয়ে অভিমত সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠিয়ে ১১ই জুনের মধ্যে প্রকাশ্যে বা গোপনে অভিমত জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। জানাগিয়েছে, বাংলাদেশ ছাড়া আরো কয়েকজন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান আইসিসির অনুরোধে সাড়া দিয়ে তাদের অভিমত দিয়েছে। অ্যামিকাস কিউরি (কোর্টের বন্ধু) হিসেবে ডা. মোহাম্মাদ হাদি জাকের হোসেইন ও আন্তর্জাতিক কমিশন অব জুরিস্ট তাদের অভিমত দিয়েছেন। এ ছাড়া ৪০০ জন রোহিঙ্গার পক্ষে একটি আন্তর্জাতিক এনজিও গ্লোবাল রাইটস কমপ্লায়েন্সও মত দিয়েছে।

আইসিসির প্রসিকিউটর ফেতো বেনসুদা মিয়ানমার থেকে জোর করে রোহিঙ্গাদের তাড়িয়ে বাংলাদেশে পাঠানো সংক্রান্ত অপরাধের বিচার করার অধিকার কোর্টের আছে কি না, জানতে চেয়ে গত ১৯শে এপ্রিল একটি পিটিশন দাখিল করেন। এর ধারা বাহিকতায় আইসিসি বাংলাদেশের অভিমত চান। মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর অত্যাচারে ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। এর মধ্যে গত ২৫ আগস্টের পরে যারা পালিয়ে এসেছে, তাদের মধ্যে ৩০ হাজার অন্তঃসত্ত্বা নারী, ৩৬ হাজার অনাথ এবং বাবা-মা নিখোঁজ এমন প্রায় ৮ হাজার শিশু বাংলাদেশে এসেছে।

সম্পর্কিত সংবাদ