“আমাদের রাজ্যেও হীরক রাজার কোন বোন বসে আছে…” – রাহুল সিনহা

“আমাদের রাজ্যেও হীরক রাজার কোন বোন বসে আছে…” – রাহুল সিনহা

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বেঙ্গলটুডেঃ

রবিবার ১৭ই জুন, নোয়াপাড়া গ্রামীন মন্ডলের উদ্যোগে ব্যারাকপুর এর একটি অনুষ্ঠান বাড়িতে অনুষ্ঠিত হলো ভারতীয় জনতা পার্টির, কিষান মোর্চার রাজ্য কার্যকারিনী সভা। সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা, কৃষান মোর্চা রাজ্য সভাপতি রামকৃষ্ণ পাল, কিষান মোর্চার সহ সভাপতি মহেশ্বর সিং সহ রাজ্য বিজেপির অন্যান্য নেতৃবর্গ।

এইদিন রাহুল সিংহ তার বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “কাল আমি অমল পালের বাড়ি গিয়েছিলাম, সেখানে কথা হচ্ছিল তার রচিত গান নিয়ে। তখন আমার মনে হল তার সেই গান, “কতো রঙ্গ দেখি দুনিয়ায়” এর দৃশ্যের মত এখানেও আমাদের রাজ্যে হীরক রাজার কোন বোন বসে আছেন, যে হীরক রাজার মতো বাংলার কৃষকদের রক্ত চুষছে।”

এইদিন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে পুরুলিয়া প্রসঙ্গে রাহুল বাবুর বলেন, “আমরা এই হত্যা ঘটনায় বিচার চেয়ে সিবিআই তদন্তের দাবীতে হাইকোর্টে যাচ্ছি। এই ঘটনায় এবার ডাক্তার ফাঁসবে, এসপি ফাসবে, এমনকি এসপি কে যারা নির্দেশ দিয়েছে তারাও ফাঁসবে। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ভেবে ছিলেন উনি একাই পুরুলিয়া জিতিয়ে নিয়ে আসবে। কিন্তু প্রথম দায়িত্বেই এতো বড় বিপর্যয়! এতো বড় ধাক্কা! তাই এখন অন্যায় ও অসংবিধানিক ভাবে পুরুলিয়া দখলের চেষ্টা করছে পুলিশ মস্তানদের সাহায্য নিয়ে। কিন্তু আমি মনে করি সেখানের মানুষ জেগে গিয়েছে, জেনে গিয়েছে কারা কি। আমরা সিবিআই তদন্ত চাই তাই এক দুদিনের মধ্যে আদালতে যাবো যাতে সঠিক দোষীদের ধরা যায়।”

এই দিন কিষান মোর্চার রাজ্য কার্যকারিনী সভায় রাহুল বাবু নরেন্দ্র মোদীর ফিটনেস ভিডিও নিয়ে বিরোধীদের আক্রমণ প্রসঙ্গে বলেন, “সেনা তো কংগ্রেস আমলেই বেশী মারা গিয়েছে। সাধারণ মানুষও কংগ্রেস আমলেই বেশী মারা গিয়েছে। পাকিস্তান হামলা করলে এখানে কালো পতাকা তুলে রাখতে হবে? তাহলে কি এখানে কোন উন্নয়নের কাজ হবে না? সেনার প্রতি আমরা যা শ্রদ্ধা দেখিয়েছি, কংগ্রেস আগে কোন দিন দেখায়নি। সারা দেশ সেনার সঙ্গে আছে, সরকারও সেনার পাশে আছে।”

এই দিন রাহুল বাবু রাজ্যে দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি থাকা নিয়ে বলেন, “রাজ্যে কোন ভোট হয়েছে নাকি? ভোট হলে আমরা সব আসনেই জিততাম। মামলা করলে তো পরের পঞ্চায়েতে নিষ্পত্তি হবে। এটা আগের অভিজ্ঞতায় তো দেখেছি। সেই জন্য জনগনের আদালতে তৃণমূল এর বিচার হবে এবং তৃণমূল বাংলা ছাড়া হবে।”

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *