/এবার খড়গপুরেও হানা দিল মারন গেম ব্লু হোয়েল

এবার খড়গপুরেও হানা দিল মারন গেম ব্লু হোয়েল

 

Sarbani Dey, Kharagpur: ব্লু-হোয়েল এই মারন গেমটি সম্প্রতি এদেশেও ঢুকে পরেছে। এই খেলার বিভিন্ন ধাপ রয়েছে। মূলত টিনএজার রাই এই খেলার  ফাদে পরছে। সম্প্রতি মেদিনীপুরের আনন্দপুরে এক কিশোরের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পিছনেও ব্লু হোয়েল খেলা রয়েছে বলে সন্দেহ  করা হচ্ছে, আর ঠিক একইরকম সন্দেহ ডানা বাধছে খড়গপুরের আইআইটি চত্বরে অবস্থিত দয়ানন্দ আর্য নামক ইংরাজি মাধ্যমের  বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ৩ জন ছাত্রীর বাঁ হাতে কাটা চিহ্ন দেখে। আর এই আতঙ্কেই ২২শে আগস্ট ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়  স্কুলে। আর তারপরই তড়িঘড়ি ওই ৩ জন ছাত্রীকে স্কুল থেকে ৩ দিনের জন্য সাসপেন্ড করা হয়। যদিও বিষয়টি ব্লু হোয়েল, সেটা  মানতে নারাজ স্কুল কর্তৃপক্ষ

ঘটনা সুত্রে জানা যায়, স্কুল কর্তৃপক্ষের বিষয়টি নজরে আসার পরই ব্লু হোয়েলের সম্ভাবনায় ওই ৩ জন  ছাত্রীর অভিভাবকদের ডেকে পাঠানো হয়৩ ছাত্রীর অভিভাবকরাই দাবী করেন, কেউ খেলার ছলে, কেউবা ছুরী দিয়ে ফল কাটতে  গিয়ে এমন কান্ড করে ফেলেছে। এমনকি ওই ছাত্রীদের কারোও কাছেই স্মার্টফোন বা ইন্টারনেট সংযোগ নেই বলে তাদের অভিভাবকদের দাবী। যদিও তা বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি স্কুল কর্তৃপক্ষের। অবশ্য বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এন কে গৌতম বলেন, “৩ জন ছাত্রীর হাতের কাটা দাগের সঙ্গে ব্লু হোয়েলের কোনও সম্পর্ক নেই

এবং তাদের অভিভাবকেরা জানিয়েছেন, বাড়িতে কেটে গিয়েছে।  আর ছাত্রীরা ইন্টারনেট কিংবা এই জাতীয় কোনও গেম খেলে না।” তবে এখানেই উঠছে প্রশ্ন, যদি ব্লু হোয়েলর সাথে ওই ৩ ছাত্রীর  হাত কাটার কোনও সম্পর্ক নাই থাকে, তাহলে তাদেরকে সাসপেন্ড করা হল কেন? সেক্ষেত্রে স্কুল কর্তৃপক্ষ বলেন, কোনও ছাত্রী  যাতে ব্লু হোয়েলের মারন ফাঁদে না পরে, সেই জন্য এই সিদ্ধান্ত। এবং অভিভাবকেরা যাতে বাড়িতে তাদের বোঝান, সেই জন্যই ৩  ছাত্রীকে ৩ দিনের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে

এছাড়াও আরও বলেন, ব্লু হোয়েলের বিষয়ে পড়ুয়াদের সচেতন করার জন্য  সেপ্টেম্বর মাসের ১ থেকে ১০ তারিখ পর্যন্ত ব্লু হোয়েল গেমের বিষয়ে একটি কর্মশালা করা হবে যাতে বিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা এই  ভয়ঙ্কর খেলা সম্পর্কে সচেতন হয়। এবং এই কর্মশালায় খড়গপুর আইআইটির বিশেষজ্ঞ মনোবিদরা আসবেন এমনটাই জানান স্কুল  কর্তৃপক্ষ

Advertisements