অমানবিক আচরণ শিক্ষিত সমাজের শিক্ষিত শিক্ষক দম্পতির!

রাজীব মুখার্জী, বারাকপুরঃ ঘরে তালা ঝুলিয়ে মাকে বারান্দায় ফেলে রেখে বেড়াতে চলে গিয়েছে সস্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে। গত বৃহস্পতিবারের এই ঘটনা ঘিরে কয়েকদিন ধরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে বারাকপুরের কালিয়ানিবাস এলাকায়। কথায় আছে ভাগের মা গঙ্গা পায় না। ৩ ছেলের মা ভাগীরথী দেবীর অবস্থাও এইটাই। রায়মনি ভট্টাচার্যের ৩ ছেলে। ছোট ছেলে রতন বেশি আদরের। তাই তাঁকেই সর্বস্ব দিয়ে দেন মা। সেই রাগে দুই ছেলে ফিরেও তাকায় না বৃদ্ধা মায়ের দিকে। মাকে ঘরের থেকে বাইরে বের করে আসাম ঘুরতে গেলেন ছেলে ও বৌমা। বিষয়টি প্রকাশ্যে হয়তো আসতো না যদি টানা দুদিন না খেয়ে,…

আদালতের নির্দেশকে পাত্তা না দিয়ে মিনাখাঁয় চললো তৃণমূলের পঞ্চায়েত র্বোড গঠন উৎসব

শান্তনু বিশ্বাস, মিনাখাঁঃ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ১৪৪নং ধারা না মেনে মিনাখাঁয় পঞ্চায়েত র্বোড গঠন করল তৃণমূল। নিরব দর্শকদের ভুমিকায় পুলিশ প্রাশাসন। কোন গণ্ডগোল বা অপ্রিতিকর ঘটনা এড়াতে আদালত পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনের দিন, পঞ্চায়েতের অফিসে ১৪৪নং ধারা জারি রাখার নির্দেশ দিয়ে ছিলো। আর সেই আদালতের নির্দেশ অমান্য করেই, মিনাখাঁ গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসের সামনেই চলল উদাম নৃত্য। শুধু উদাম নৃত্য নয়, চলে পঞ্চায়েতের অফিসের সামনে পুলিশের সামনেই উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ডিজে বক্স চালিয়ে আবির খেলা, নৃত্য আর বাজী ফাটানো। আর এই সব কিছুই দাড়িয়ে দেখলেন পুলিশ আধিকারিকরা। ওসি, আই সি, এস ডি পি…

দুই বাংলার সম্প্রীতি আরও দৃঢ় করবার লক্ষ্যে বেঙ্গল ভেটেরান্স ফুটবল ক্লাব

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বাংলাদেশের মানুষদের সাথে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করবার জন্য বাঁকুড়া, বীরভূম, কাঁচরাপাড়া সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে ১৮ জনের বয়স্ক ফুটবল দল বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে ১৯শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ গেল প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে৷ ২০শে সেপ্টেম্বর নড়াইল জেলায়, ২১শে সেপ্টেম্বর মাগুরা এবং ২৩শে সেপ্টেম্বরে ঝিনাইদহে এই ম্যাচ হবে। মোট ৩ টি প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ৷ ২৪শে সেপ্টেম্বর দেশে ফিরবেন ভারতীয় ভেটেরান্স ফুটবল খেলোয়াড়রা। ভেটারান্স ফুটবল দলের অধিনায়ক পার্থ রায় বলেন, ৫০ বছরের উর্ধ খেলোয়াড়ও আমাদের দলে রয়েছে। দুই দেশের সম্প্রীতি ও মৈত্রী আরও দৃঢ় করবার জন্য…

ছয়ঘরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূলের বোর্ড গঠন

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বনগাঁ মহকুমার ছয়ঘরিয়া পঞ্চায়েতের গ্রামসভার ১৮টি আসনের মধ্যে ১৭ টিতে তৃণমূল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করে৷ কিন্তু ১ টিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। আদালতের নির্দেশে দীর্ঘদিন বোর্ড গঠন স্থগিত থাকার পর অবশেষে ১৯শে সেপ্টেম্বর ছয়ঘরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠিত হলো৷ প্রধান হলেন প্রসেনজিৎ ঘোষ৷ তিনি শহর তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি। প্রসেনজিৎ বাবু বলেন, পেট্রাপোল বন্দর রয়েছে এই ছয়ঘরিয়া এলাকায়৷ এই বন্দরে ব্যবসা বাণিজ্যে শ্রীবৃদ্ধি এবং মা-মাটি-মানুষ সরকার মমতা ব্যানার্জীর উন্নয়নের ধারাকে তিনি এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

দূর্ঘটনা কমাতে এবার বাম্পার গৌরবঙ্গ রোডে

শান্তনু বিশ্বাস, হাবড়াঃ বেশ কিছু দিন আগে পর পর দূর্ঘটনা ঘটে গৌরবঙ্গ রোডে। বেশ কিছু মানুষ আহত হন আবার প্রাণও যায় সাধারণ মানুষের। নানা ভাবে দূর্ঘটনা যেন গৌরবঙ্গ রোডকে ঘিরে ধরেছিল। আর তাই দুর্ঘটনার কমানোর উদ্যোগ নিলো হাবড়া থানার পুলিশ। গত ৩ বছরে গৌরবঙ্গ রোডে বেশি দূর্ঘটনা ঘটেছে, চিহ্নিত করে গার্ডওয়েল হওয়ার পরেও দূর্ঘটনা কমেনি। বেশ কিছু দূর্ঘটনা ঘটে ওই স্থানে। এবার দূর্ঘটনা কমানোর জন্য আরও এক নতুন উদ্যোগ নিল হাবড়া থানা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতি ১ কিলোমিটার অন্তর বাম্পার দেওয়া হয় এদিন। এছাড়া প্রত‍্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ মোড় থেকে রাস্তায় ওঠার…

চিকিৎসার গাফিলতিতে রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা শিলিগুড়ির নিউটাউনে

  প্রতিনিধি, শিলিগুড়িঃ শিলিগুড়ির আশ্রম পাড়ার বাসিন্দা 7 বছরের সায়েশা ব্যানার্জি, গত ১৫ই সেপ্টেম্বর জ্বর ও বমি নিয়ে রাত ৯ টার সময় ভর্তি হয় নিউটাউনের সুপার স্পেশালিটি চাইল্ড হাসপাতাল ভাগীরথী নেওটিয়াতে। ১৭ই সেপ্টেম্বর, ভোর বেলা হাসপাতাল থেকে ফোন করে পরিবারকে জানানো হয় বাচ্চার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারপর বাড়ির লোকেরা গেলে ভোর ৫ টা নাগাদ বাচ্চার মৃত্যু হয়। বাচ্চার পরিবারের অভিযোগ, চিকিৎসার গাফিলতিতে বাচ্চার মৃত্যু হয়েছে। দুদিন কেটে গেলেও হাতে পায়নি রক্ত পরীক্ষা সহ অন্যান্য রিপোর্ট গুলি। তাদের আরও অভিযোগ, প্রায় ৪৮ ঘন্টা কেটে গেলেও কেন সঠিক চিকিৎসা হলো না। চিকিৎসার জন্যই…

বকেয়া টাকা চাইতে গিয়ে মার খেল মালিকের হাতে কর্মচারী, ঘটনাস্থলে মৃত্যু হল কর্মচারীর বাবার

শান্তনু বিশ্বাস, আশোকনগরঃ কাজের বকেয়া ২০০ টাকা চাইতে গিয়ে মদের আসরে মার খেল মালিকের হাতে কর্মচারী লিটন বারুই। ছেলে কে বাঁচাতে এসে মদ্যপদের হাতে মৃত্যু হয় গোকুল বারুই (৬৩) পেশায় ভ্যান চালক বাবার। ঘটনাটি ঘটেছে, ১৬ই সেপ্টেম্বর রাত ১০টার সময় উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর থানার অন্তরর্গত নবজীবনপল্লি এলাকায়। ঘটনার পর রাতে ব্যপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এলাকায়। ঘটনার খবর পেয়ে হাবড়া ও অশোকনগর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে পৌছয় ঘটনাস্থলে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযুক্ত সেলাই কারখানার মালিক সুভাষ বালা স্থানীয় রাজনৈতিক প্রভাব দেখিয়ে এর আগেও বেস কিছু ঘটনা ঘটিয়েছে একাধিকবার…

বিশ্বকর্মা পুজো উপলক্ষে বনগাঁ থানার এক অভিনব উদ্যোগ

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বিশ্বকর্মা পুজো উপলক্ষে বনগাঁ থানার এক অভিনব উদ্যোগ৷ হেলমেটহীন যাত্রীদের লজ্জা দেওয়ার জন্য তাদেরকে দাঁড় করিয়ে পরিয়ে দেওয়া হলো নতুন হেলমেট, গাড়িতে লাগিয়ে দেওয়া হল “সেভ ড্রাইভ, সেভ লাইফ” স্টিকার ৷ ১৭ই সেপ্টেম্বর, দুপুর ৩টে থেকে বনগাঁ থানার সামনে থানার পক্ষ থেকে চাকদা রোডে চলছে এই “সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” এর অভিনব কর্মসূচী। জেলা আরটিও বোর্ডের সদস্য গোপাল শেঠ এই অভিনব উদ্যোগে শরিক হন। বনগাঁ থানার সঙ্গে তিনিও হাতে হাত লাগান এবং মানুষকে বোঝাতে থাকেন হেলমেট পরার উপকারিতা।

ঋণ নিয়ে শোধ না করতে পারায়, গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী লটারী ব্যবসায়ী

শান্তনু বিশ্বাস, হাসনাবাদঃ ব্যবসায়ে লোকসান ঠেকাতে এলাকা থেকে ঋণ নিয়ে শোধ না করতে পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী লটারী ব্যবসায়ী। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার হাসনাবাদ থানার অন্তরর্গত মুড়াগাছা এলাকায়। মৃতের নাম গোলাম সরদার, পেশায় লটারি টিকিট ব্যবসায়ী। সোমবার সকালে তাঁর বাড়ির শৌচালয়ের পাশ থেকে উদ্ধার হয় তার ঝুলন্ত নিথর দেহ। স্থানীয় সূত্রে খবর পেয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে হাসনাবাদ থানার পুলিশ। জানা যায় লটারির টিকিটের ব্যবসা করতে গিয়ে বাজারে বেশ কয়েক হাজার টাকা ঋণ হয়ে যায় ওই যুবকের। আর তাই পরিষোধ কি ভাবে করবে তা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক…

বাঙালির ইচ্ছা শক্তি ও স্বপ্ন পূরণের যাত্রা

রাজীব মুখার্জী, পলতা, উত্তর ২৪ পরগনাঃ ইংরেজি তে একটি প্রবাদ বাক্য আছে “If there is a will, there is a way”। প্রবল ইচ্ছা শক্তি আর মনের জোর থাকলে কী না সম্ভব। ইচ্ছাশক্তিতে ভর করেই তো ১০২ বছর বয়সে বিশ্বমঞ্চে সোনা জিতে ইতিহাস গড়তে পেরেছেন মন কউর। বয়স তো একটা সংখ্যা মাত্র, যে সংখ্যা আমাদের বাইরের বয়স কে মাপে কিন্তু আমাদের ভেতরে জেগে ওঠে যৌবনের আগুন। যে আগুন সবকিছুকে সম্ভব করে তোলে। তাই বোধয় লোকে বলে “IMPOSSIBLE means I AM POSSIBLE”। ইতিহাসে খুঁজলে এরম অনেক উদাহরণ পাওয়া যাবে, কিন্তু আমাদের চোখের সামনে…