বাংলাদেশের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে কয়লা উধাও, তদন্তে দুদক

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকাঃ দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির এক লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা উধাওয়ের ঘটনায় তদন্তে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুর্নীতির খবর অনুসন্ধানের জন্য তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। দুদকের উপ-পরিচালক শামসুল আলমের নেতৃত্বে গঠিত এই কমিটিতে সদস্য হিসেবে আছেন সহকারি পরিচালক এ এস এম সাজ্জাদ হোসেন ও উপ সহকারি পরিচালক এ এস এম তাজুল ইসলাম। উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রনব কুমার ভট্টচার্য জানিয়েছেন, দুদক পরিচালক কাজী শফিকুল আলম কে এই অনুসন্ধান কাজের তদারকি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দুদক আইন অনুযায়ী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে অনুসন্ধান শেষ করে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এদিকে কয়লা উধাওয়ের ঘটনায় খনির শীর্ষ চার কর্মকর্তাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। ঘটনা তদন্তে পেট্রোবাংলার একজন কর্মকর্তাকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। খনির মাইনিং বিভাগের দায়িত্বে নিয়োজিত জিএম এটিএম নুরুজ্জামান চৌধুরী ও ডিজিএম মো. খাদেমুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত এবং এমডি প্রকৌশলী মো. হাবিব উদ্দিন আহমেদ ও সচিব (জিএম প্রশাসন) আবুল কাশেম প্রধানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। অন্যদিকে, রবিবার রাতে কয়লার সংকটের কারণে দেশের একমাত্র কয়লা ভিত্তিক দিনাজপুরের ৫২৫ মেগাওয়াট বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর ফলে চরম বিদ্যুৎ সংকটে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে দিনাজপুর সহ উত্তরাঞ্চলের রংপুর বিভাগের আট জেলায়। এর প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডেও।

সম্পর্কিত সংবাদ