বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পূর্ণ

Spread the love
  • 32
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    32
    Shares

 

মিজান রহমান, ঢাকাঃ বাংলাদেশের সাংবাদিকদের সর্বোচ্চ সংগঠন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) নির্বাচন ১৩ই জুলাই, শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাংবাদিকতা পেশার অধিকার আদায়ের শীর্ষ সংগঠন বিএফইউজের নির্বাচনে এবারে ভোটারের সংখ্যা সর্বমোট ৪ হাজার ১৪১ জন। নির্বাচনে এক যোগে সারা দেশে ১০টি ইউনিটে অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতি, মহাসচিব ও কোষাধ্যক্ষ এই ৩টি পদে দেশের সব ভোটাররা ভোট প্রয়োগ করেন। বাকি পদগুলো শুধু ইউনিট ভিত্তিক ভোটে নির্বাচিত হন।

১৩ই জুলাই রাত সাড়ে ৯ টার দিকে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে জানানো হয় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) নির্বাচনে ১৯৬০টি ভোট পেয়ে মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন শাবান মাহমুদ। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্দ্বী জাকারিয়া কাজল পেয়েছেন ৭০০টি ভোট। তবে সভাপতি পদের ফল ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে। সভাপতি পদে স্বল্প সংখ্যক ভোটের তারতম্য থাকায় ঐ ভোট ম্যানুয়ালী হিসাবের দাবি জানিয়েছেন এক প্রার্থীর পক্ষের সমর্থকরা।

বিষয়টি বিবেচনা করার জন্য নির্বাচন কমিশন সময় নিয়েছেন। এ ছাড়া ১১০৩টি ভোট পেয়ে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ড. উৎপল কুমার সরকার পেয়েছেন ৭৫৫টি ভোট। যুগ্ম-মহাসচিব পদে আবদুল মজিদ, কোষাধ্যক্ষ দীপ আজাদ এবং দফতর সম্পাদক পদে বরুণ ভৌমিক নয়ন নির্বাচিত হয়েছেন। এ ছাড়া নির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন শেখ মামুনূর রশিদ (৮৬৬), নূরে জান্নাত সীমা (৭১০), সেবিকা রানী (৬২১), খায়রুজ্জামান কামাল (৬১৮)। প্রধান নির্বাচন কমিশনার আলমগীর হোসেনের পক্ষে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম রতন এ ফল ঘোষণা করেন।

এর আগে ১৩ই জুলাই, শুক্রবার সকাল ৯ টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৫ টায় শেষ হয়। ঢাকায় ৩ হাজার ২৪৯ ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ৯১৮ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, যশোর, ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ, কক্সবাজার, কুষ্টিয়া ও বগুড়ার ভোটাররাও তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। জাতীয় প্রেস ক্লাবে সকাল থেকেই ভোটাররা লাইন ধরে পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দেন। প্রতিবারের মতো এ নির্বাচন কে কেন্দ্র করে এবারও প্রেস ক্লাবে বসে সাংবাদিকদের মিলনমেলা। কারণ এ মেলাকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন পর এক জনের সঙ্গে আরেক জনের দেখা হওয়ায় অনেকে দিনভর আড্ডা আর কুশল বিনিময় করেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ই জুলাই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও শ্রম আদালতের নির্দেশে নির্বাচনের ঠিক আগের দিন অর্থাৎ ৫ই জুলাই নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। পরবর্তীতে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হলে ১৩ই জুলাই নির্বাচনের দিন ঘোষণা করা হয়।

সম্পর্কিত সংবাদ