বাংলাদেশের বান্দরবানে পাহাড় ধস, একই পরিবারের ৩ জন সহ নিহত ৪

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকাঃ বান্দরবানে দুই দিনের ভারিবর্ষণে পাহাড় ধসের পৃথক ঘটনায় ৩রা জুলাই, মঙ্গলবার দুপুরে লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড এলাকা কালাইয়া পাড়ায় এক পরিবারের তিন জন সহ মোট ৪ জন নিহত হয়েছে। মৃতদের নাম মো. হানিফ (৩৫), তার স্ত্রী রেজিয়া বেগম (২৫), তাদের শিশুকন্যা হালিমা আক্তার (৩)। এর আগে সকালে পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে এক নারীর মৃত্যু হয়। শহরের কালাঘাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত নারীর নাম প্রতিমা রানী দাশ (৫০)। স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার ভোর রাত থেকে ভারী বর্ষণ হয়েছে। এর ফলে পাহাড়ের মাটি ধসে বাড়ির উপর পড়লে এতে বাড়িতে থাকা প্রতিমা রানী মাটি চাপা পড়ে। পরে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়দের সহায়তায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বান্দরবান সদর থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম সরোয়ার জানান, “বান্দরবানের কালাঘাটা এলাকায় পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে”। তাকে উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টার প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে জেলার সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর জল বৃদ্ধি পাওয়ায় শহরের নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

জেলা শহর ও রুমা উপজেলার বিভিন্ন স্থানেও পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। বান্দরবান-রুমা সড়কের দলিয়ান পাড়ার কাছে মঙ্গলবার সকালে সড়কের উপর পাহাড় ধসে পরলে রুমা উপজেলার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বান্দরবান-রাঙ্গামাটি সড়কের পুলপাড়া নামক এলাকায় একটি ব্রিজ জলের নীচে তলিয়ে গেলে সকাল থেকে বান্দরবানের সাথে রাঙ্গমাটির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। পাহাড় ধসে প্রাণহানি ঠেকাতে জেলা প্রশাসন ও পৌরসভা কর্তৃপক্ষ শহর ও উপজেলায় মাইকিং করা হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতি কমাতে প্রশাসন সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন।

সম্পর্কিত সংবাদ